বাকেরগঞ্জে র‌্যাবের চেকপোষ্ট : ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে মাদরাসা শিক্ষক আটক

বাকেরগঞ্জে র‌্যাবের চেকপোষ্ট : ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে মাদরাসা শিক্ষক আটক

📅23 February 2019, 21:42

স্বদেশসময় ডটকমঃ বরিশাল প্রতিনিধি মাইদুল ইসলাম মামুনঃ

বরিশাল বাকেরগঞ্জ উপজেলায় গাইড দেওয়ার কথা বলে রুমে ডেকে শিক্ষক কর্তৃক ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক সাইফুল ইসলাম কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮। গত রাতে বাকেরগঞ্জ থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। তার বিরূদ্ধে আটককৃত সাইফুল বরগুনা সদর থানার সাহেবের হাওলা গ্রামের মাওলানা মোঃ ইব্রাহিম খলিল এর ছেলে। আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে বলে মেইল বার্তায় নিশ্চিত করেছে র‌্যাব। সাইফুলের বিরূদ্ধে বরগুনা সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা রয়েছে। যার নং ২৩, তারিখ ২০ জানুয়ারি ২০১৯, জিআর নং-২৩/১৯ ।
মামলা ও র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২০ জানুয়ারী বরগুনা জেলার সদর থানাধীন কেওড়াবুনিয়া এলাকায় সাহেবের হাওলা রাফেজিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী মোসাঃ ঝুমুর(১৩)কে গাইড দেওয়ার কথা বলে মাদ্রাসার পিছনের একটি বসতবাড়িতে ডেকে নিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষক সাইফুল ইসলাম জোর পূর্বক ধর্ষণ করে । ধর্ষণের ফলে ভিকটিমকে গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসার জন্য বরগুনা জেলার সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরবর্তীতে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে রেফার্ড করেন। এই বিষয়টি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকার শিরোনামে আলোড়ন সৃষ্টি করে। এর পরে এই বিষয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়।
এ ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারের ব্যাপারে প্রথম থেকেই র‌্যাব-৮ তৎপর ছিল। মামলার প্রধান আসামী মোঃ সাইফুল ইসলাম ধূর্ত, বিচক্ষণ ও বুদ্ধিমান হওয়ার কারণে সে বিভিন্ন সময়ে তার অবস্থান ও মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করতে থাকে। একারণে তাকে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আরও আগেই গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তারপরও র‌্যাব-৮ সাইফুলকে গ্রেফতারের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে থাকে। বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানা এলাকায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে একটি চেকপোষ্ট স্থাপন করা হয়। র‌্যাবের চেকপোষ্ট চলাকালীন সময়ে আজ ২১ ফেব্রুয়ারী রাতে র‌্যাবের চেকপোষ্ট দেখে একজন ব্যক্তি দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা তাকে আটক করে। পরবর্তীতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদে সে সবকিছু স্বীকার করে।

No Comments

No Comments Yet!

You can be first one to write a comment

Leave a comment