বাংলাদেশ বেতারের সিনেরঙ অনুষ্ঠানঃ কুইজ বিজয়ীদের পুরস্কার ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়

বাংলাদেশ বেতারের সিনেরঙ অনুষ্ঠানঃ কুইজ বিজয়ীদের পুরস্কার ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়

বাংলাদেশ বেতারের সিনেরঙ অনুষ্ঠানঃ কুইজ বিজয়ীদের পুরস্কার ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়

📅14 September 2019, 10:13

স্বদেশসময় ডটকমঃ
১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ শুক্রবার সকাল ০৯ টা থেকে বাণিজ্যিক কার্যক্রম, বাংলাদেশ বেতার এর উদ্যোগে জাতীয় বেতার ভবন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হলো বাংলাদেশ চলচ্চিত্র নিয়ে বিশেষ সাপ্তাহিক অনুষ্ঠান (প্রতি সোমবার প্রচারিত হয় বিকাল ৪:০০টা থেকে ৫:০০টা) সিনেরঙ এর কুইজ বিজয়ী দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে আগত ২৩৫ জন শ্রোতাকে অতিথীদের মাধ্যমে পুরস্কার ও সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক জনাব নারায়ন চন্দ্র শীল, উপ-মহাপরিচালক(বার্তা) জনাব হোসনেয়ারা তালুকদার, প্রধান প্রকৌশলী জনাব আহমেদ কামরুজ্জামান, উপ-মহাপরিচালক(অনুষ্ঠান) জনাব সালাহউদ্দিন আহমেদসহ বেতারের সকল ইউনিট প্রধান ও পরিচালকগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিত্র নায়ক ওমরসানী চিত্র নায়িকা মৌসুমী ও পপি, মাইকেল জ্যাকসন খ্যাত বিল্লাল বেপারী ও কৌতুক অভিনেতা মুরাদ, সঙ্গীত শিল্পী মেহরীন, রাজীব ও পুতুল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাণিজ্যিক কার্যক্রমের পরিচালক জনাব ড. মির শাহ আলম।
অনুষ্ঠানের আলোচনা পর্বে বেতারের মহাপরিচালক বলেন- অতীতে বাংলাদেশি চলচ্চিত্রের প্রধান প্রচার মাধ্যম ছিল বাংলাদেশ বেতার। মাঝে দীর্ঘদিন বেতারের ক্ষয়িঞ্ষু জনপ্রিয়তা টিভি মিডিয়া গ্রাস করায় চলচ্চিত্রের সাথে বেতারের সম্পর্কে ছেদ ঘটেছে। এদেশের ব্যবসা সফল ও জনপ্রিয় সিনেমার সফলতার কাহিনী বর্ণনা করে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে দেশি সিনেমার প্রতি নেতিবাচক ভাব দূও করার প্রয়াশে বেতার সিনেরঙ অনুষ্ঠানটি চালু করেছে; যা শ্রোতাদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।
ওমরসানী, মৌসুমী, পপি সকলইে অতীতে বাংলাদেশ বেতারে বাংলাদেশী সিনেমার ব্যাপক প্রচারণার কথা স্মরণ করে বলেন বর্তমানে বাংলা সিনেমাকে তার হারানো গৌরব ফিরিয়ে দিতে বাংলাদেশ বেতারে প্রতিটি নতুন ছবির প্রচারণা কার্যক্রম ব্যাপকভাবে চালানো আবশ্যক। একমাত্র এই প্রচারণার মাধ্যমেই দেশের আপামর প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর কাছে যে কোন নতুন ছবির আকর্ষণ পৌছে দেয়া সম্ভব।
উল্লেখ্য, বেতারপ্রেমী শ্রোতাদের নিয়মিত চিঠিতো রয়েছেই; ফেসবুক লাইক, রিচ, কমেন্টস এবং ইমেইল এর হিসাবে বর্তমানে বেতারের সর্বাধিক জনপ্রিয় অনুষ্ঠান এই সিনেরঙ। অনুষ্ঠানটি যদি বাংলাদেশী সিনেমার প্রতি দেশের জনসাধারনের সামান্যতম আগ্রহ বাড়াতে সক্ষম হয়, সেটাই হবে রাষ্ট্রীয় মিডিয়া হিসেবে বেতারের এবং উক্ত সিনেরঙ অনুষ্ঠানটির সার্থকতা।
অনুষ্ঠান শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

Share this article:

No Comments

No Comments Yet!

You can be first one to write a comment

Leave a comment